Spread the love

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ ফরিদপুর সদরের ঈশান গোপালপুর লক্ষিদাসের হাটে প্রতিপক্ষের হামলায় শাহিন নামে এব ব্যাক্তি গুরুত্বর আহত হয়েছে।
আহত শাহিনের অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ৪ জুলাই সদর উপজেলার ঈশান গোপালপুর ইউনিয়ন লক্ষি দাশের হাটে সন্ধ্যা আনুমানিক ৬টা ৩০মিঃ এর সময় বিষ্ণুপুর গ্রামের মোঃ শাহিন মোল্যা বাড়ি যাওয়ার পথে ঔ এলাকার ইলিয়াছ মেম্বর শাহিনের মটর সাইকেলসহ রাস্তা আটকিয়ে সাইকেল থেকে নামিয়ে ঈশান গোপালপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম মজনুকে ফোন দেয়।

চেয়াম্যান মজনু বলে, শালার হাত-পা ভেঙ্গে দে। মজনুর নির্দেশ পাওয়ার পর একই এলাকার আরিফ, রাজিব, শরিফুল,জিও ,আবু তাহেরসহ অপরিচিত আরো ৬/৭জন উক্ত শাহিনকে লোহার রর্ড, স্যানদা দিয়ে কুপিয়ে এবং লাঠি দিয়ে পিটিয়ে শাহিনের দু হাত ও পা ভেঙ্গে দেয়।
আহত শাহিন অভিযোগ করে বলেন, গত সাত আটদিন আগে আমার ছোটভাই মনার সাথে চেয়ারম্যান মজনুর লোক আমজাদের কথা কাটাকাটি হয়েছিল। এরই জের ধরে আমাকে হত্যার চেষ্টায় পূর্ব পরিকল্পিতভাবে পিটিয়ে কুপিয়ে জখম করে। এ সময় আহত শাহিনের এফজেট মটর সাইকেল এবং একটি স্যামসাং মোবাইল উক্ত হামলাকারীরা ছিনিয়ে নেয়।

এসময় উপস্থিত এলাকার কুদ্দুস, রাফিক, সোনামিয়া, রজন আহত শাহিন মোল্যাকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে এবং ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে। এব্যাপারে জানার জন্য স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম মজনুর সাথে মোবাইলে ফোন করলে তিনি ফোনটি ধরেনি।


Spread the love