Spread the love

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ ফরিদপুরে পণ্যে পাটজাত মোড়কের বাধ্যতামূলক ব্যবহার আইন, ২০১০ এবং বিধিমালা ২০১৩ প্রয়োগ ও বাস্তবায়ন শীর্ষক কর্মশালা কোন রকম পূর্ব পরিকল্পনা ছাড়াই করলেন পাট কর্মকর্তা।
আর এমন অগোছালো কর্মশালা দেখে কর্মশালার প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক অতুল সরকার অসন্তোষ প্রকাশ করেন অনুষ্ঠান স্থলে। তিনি এসময় তাদের কাজে আরো বেশী গতিশীলতা আনায়নসহ বিভিন্ন দিক নির্দেশনা প্রদান করেন।
বুধবার দুপুরে ফরিদপুর জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে জেলা প্রশাসন ও ফরিদপুর পাট অধিদপ্তর, বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয় যৌথভাবে এই কর্মশালার আয়োজন করে।
জেলা প্রশাসক তাদের অফিসকে কাজের মান বৃদ্ধির লক্ষে তিনি বেসরকারী প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে ল্যাপটপ, কম্পিউটার ও প্রিন্টার মেশিনের ব্যবস্থা করে দেন কর্মশালা অনুষ্ঠানে বসেই।
এসময় জেলা প্রশাসক বলেন, ফরিদপুর পাটের জেলা হিসেবে পরিচিত আর এই জেলায় আপনাদের আরো বেশী কাজের ক্ষেত্রে মনোযোগি হতে হবে। আমি কাজের মানুষ, কাজের ক্ষেত্রে কোনরকম ফাকিঁ ঝুকি আমি মেনে নিতে পারবো না।
তিনি বলেন আপনাদের মাসব্যাপী মোবাইল কোর্টসহ বিভিন্ন কাজের তদারকি ব্যবস্থা এখন থেকে মনিটরিং করা হবে প্রতিনিয়ত।
কর্মশালায় ফরিদপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক(সার্বিক) রোকসানা রহমানের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক অতুল সরকার।
অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মোঃ আসলাম, ফরিদপুর কৃষিসম্প্রসারন অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক কার্ত্তিক চন্দ্র চক্রবর্তী, ফরিদপুর পাট অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক আব্দুস সামাদ আজাদ, মূখ্য পরিচালক জিয়ারত আলী আকন্দ, পাট উন্নয়ন কর্মকর্তা লুৎফর আমিন, করিম গ্রæপের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর মিয়া, ব্যবসায়ী নেতা আওলাদ হোসেন বাবর প্রমুখ।


Spread the love