Spread the love

সালথা প্রতিনিধিঃ ফরিদপুরের সালথায় বাল্য বিয়ে থেকে রক্ষা পেল ৬ষ্ঠ শ্রেনীর এক ছাত্রী। গতকাল মঙ্গলবার রাত ১০ টায় সংবাদ পেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ হাসিব সরকার ঘটনা স্থলে গিয়ে ওই বিয়ে বন্ধ করে দেন।
জানা গেছে, উপজেলার রামকান্তপুর ইউনিয়নের মাঠ সালথা দাখিল মাদ্রাসার ৬ষ্ঠ শ্রেনীতে পড়ূয়া এক মেয়ের বাল্য বিয়ের আয়োজন করেন তার বাবা-মা। খবর পেয়ে রাত ১০ টায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ হাসিব সরকার পায়ে হেটে গিয়ে ওঠেন ওই বাড়িতে। তার অবস্থানের কথা টের পেয়ে পাত্র পক্ষ পালিয়ে যায়। এসময় স্থানীয়দের অনুরোধে ওই মেয়ের অভিভাবকদের থেকে লিখিত মুচলেকো নিয়ে ও ৬ষ্ঠ শ্রেনী পড়–য়া ওই মেয়ের পূর্ন বয়স না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে দিতে পারবেনা এই মর্মে লিখিত নেন তিনি। পরে পাত্র পক্ষের বাড়ি পাশর্^বর্তী একই গ্রামে হওয়ায় পাত্র পক্ষের বাড়িতেও যান তিনি। সেখানে গিয়ে বিয়ের বর (পাত্র) কে না পাওয়ায় তার মায়ের কাছ থেকে লিখিত মুচলেকা নেন। এ ঘটনায় ওই রাতে এলাকায় চাঞ্চল্যকর সৃষ্টি হয়েছে।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্ম্দ হাসিব সরকার বলেন, ৬ষ্ঠ শ্রেনী পড়–য়া মেয়েকে বিয়ে দিচ্ছে এমন খবর পেয়ে রাত ১০ টায় স্থানীয় কাজী মাওলানাকে নিয়ে ওই বাড়িতে গিয়ে উঠি। ঘটনাস্থলে পাত্রপক্ষ পাওয়া যায়নি। তবে উভয় পক্ষকে পূর্ন বয়স না হওয়া পর্যন্ত ছেলে এবং মেয়েকে বিয়ে দিতে পারবে না এই মর্মে লিখিত মুচলেকা নিয়ে তাদেরকে সাবধান করা হয়েছে।


Spread the love