আজ বুধবার, ২৭শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , ১১ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং,রাত ১১:৪৪

বোয়ালমারীতে প্রেমিকার সাথে দেখা করতে এসে ধুলাই খেয়ে প্রেমিক হাসপাতালে


বোয়ালমারী প্রতিনিধি: ফরিদপুরে বোয়ালমারী উপজেলার দাদপুর ইউনিয়নের কৃষ্ণনগর গ্রামে সোমবার (২৫.১১.১৯) সকাল ১০টার দিকে প্রেমিকার সাথে (প্রেমিকার স্বামী বাড়ি) দেখা করতে আসে প্রেমিক সজল মল্লিক (২৫)। এ সময় তার (সজলের) প্রেমিকার স্বামী পলাশ সজলকে লোকজন নিয়ে মারধর করে আটকিয়ে রাখে। পরে পুলিশকে খবর দিলে জয়নগর ফাঁড়ির পুলিশ সজলকে উদ্ধার করে বোয়ালমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্রো চিকিৎসা দেয়। সজল মল্লিক গোপালগঞ্জ জেলার সাদুল্লাহ উপজেলার বিবাড়ি ইউনিয়নের সুজন মল্লিকের ছেলে। সে একটি প্রসাধনি কোম্পানীর বোয়ালমারীতে এসআর পদে কাজ করতো। সজল মল্লিক জানান, দীর্ঘদিন ধরে মাদারীপুর জেলার চৌবশি গ্রামে অন্তরা নামের একটি মেয়ের সাথে প্রেম করে আসছে। ৪ মাস আগে অন্তরার বিয়ে হয় দাদপুর ইউনিয়নের কৃষ্ণনগর গ্রামে। সে সোমবার সকালে কৃষ্ণনগর গ্রামে অন্তরার সাথে দেখা করতে গেলে পলাশ লোকজন নিয়ে তাকে মারধর করে আটকিয়ে রাখে। পরে পুলিশ গিয়ে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসে।
এব্যাপারে পলাশ বলেন, আমি মারধরের কোন ঘটনা জানি না। কি হয়েছে তাও জানি না।
এ ব্যাপারে জয়নগর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মো. নজরুল ইসলাম বলেন, আমাদের কাছে ফোন আসে ডাকাত আকট হয়েছে। আমরা ঘটনাস্থলে পৌছে দেখি সজলকে আটকিয়ে রেখেছে। আহত অবস্তায় তাকে (সজল) উদ্ধার করে হাসপাতালে এনে চিকিৎসা দিয়েছি। যেহেতু কোন পক্ষই লিখিত অভিযোগ দিতে চাচ্ছে না। সেহেতু সজলের অভিভাবকদের জিম্মায় দিয়ে দেওয়া হবে।
থানা অফিসার ইনচার্জ মো. আমিনুর রহমান বলেন, সজলকে মারধরের ঘটনা ঘটেছে। ফাঁড়ির ইনচার্জকে বলেছি। তাদেরকে থানায় নিয়ে আসার জন্য এবং আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য।

     আরো পড়ুন