Spread the love

খুলনা প্রতিনিধিঃ বুধবার দুপুরে বৃহত্তর খুলনা উন্নয়ন সংগ্রাম সমন্বয় কমিটির পক্ষ থেকে স্থানীয় প্রেস ক্লাবে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে উল্লিখিত দাবি উত্থাপন করা হয়।
এসময় লিখিত বক্তব্য পড়ে শোনান কমিটির মহাসচিব শেখ আশরাফ-উজ-জামান। একই সঙ্গে এসব দাবি বাস্তবায়নের লক্ষ্যে আগামী ৮ ও ১১ ডিসেম্বর নগরীতে মানববন্ধন কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়।
উন্নয়নের এই ১০ দফা দাবিগুলো হলো- খুলনা-ঢাকা বিরতিহীন ট্রেন সার্ভিস চালু, খুলনা-দর্শনা ডবল রেল লাইন স্থাপন, খুলনা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (কেডিএ) চেয়ারম্যান পদে স্থানীয় প্রতিনিধি নিয়োগ, অনিয়ম-দুর্নীতিমুক্ত কেডিএ গঠন, খানজাহান আলী বিমান বন্দরের দ্রæত বাস্তবায়ন, পাইপ লাইনে গ্যাস সরবরাহ, খুলনা-যশোর রোড ছয় লেনে উন্নতিকরণ, রূপসা ও ভৈরব নদের তীর ঘেঁষে শহর রক্ষা বাঁধসহ রিভারভিউ রোড নির্মাণ এবং ত্রুটি মুক্ত আধুনিক রেল স্টেশন নির্মাণ।
সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, খুলনার অবকাঠামোগত উন্নয়নের জন্য ১৯৬১ সালে খুলনা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (কেডিএ) গঠিত হয়। কিন্তু যে উদ্দেশ্য নিয়ে সংস্থাটি গঠন করা হয়েছিল, তা কখনই পূর্ণতা পায়নি। এমনকি বিগত ১০-১৫ বছরের মধ্যে কেডিএ এক প্রকল্পও সঠিকভাবে বাস্তবায়ন করতে পারেনি।
বাস্তবায়নকৃত প্রকল্পগুলোও নাগরিকদের পূর্ণ চাহিদা মোতাবেক হয়নি। মূলতঃ অভিজ্ঞতা, দুরদর্শিতা ও আন্তরিকতার অভাবে গুরুত্বপূর্ণ প্রকল্পসমূহ প্রণয়ন, উপস্থাপন ও অর্থায়নে সফলতা দেখাতে ব্যর্থ হয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। সর্বপরি বিভাগীয় শহর খুলনায় উন্নয়নের ছোঁয়া লাগাতেও ব্যর্থ হয়েছে কেডিএ।
এ অবস্থায় খুলনা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (কেডিএ) চেয়ারম্যান পদে স্থানীয় প্রতিনিধি নিয়োগ, অনিয়ম-দুর্নীতিমুক্ত কেডিএ গঠন, অনুমোদিত প্রকল্পগুলো দ্রæত বাস্তবায়ন, মাস্টারপ্লান অনুযায়ী প্রকল্প গ্রহণ, অনুমোদন ও অর্থায়ন করতে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের হস্তক্ষেপ কামনা করা হয়।
সংবাদ সম্মেলনে উত্থাপিত অন্যান্য দাবির মধ্যে রয়েছে- নতুন গ্যাস ক্ষেত্র আবিস্কারের লক্ষ্েয এ অঞ্চলে দ্রæত জরিপ কার্যক্রম পরিচালনা, খানজাহান আলী (র.) সেতু থেকে রূপসা ঘাট পর্যন্ত এবং শের-এ বাংলা রোড চার লেনে উন্নিত করণ উল্লেখযোগ্য।
সংবাদ সম্মেলনে বৃহত্তর খুলনা উন্নয়ন সংগ্রাম সমন্বয় কমিটির সভাপতি শেখ মোশারফ হোসেন, মহাসচিব শেখ আশরাফ-উজ-জামান, যুগ্ন-মহাসচিব মিজানুর রহমান জিয়া, সাবেক সভাপতি এস এম দাউদ আলী, ইঞ্জিনিয়ার আজাদুল হক, সহ-সভাপতি শাহিন জামান পন, এ্যাড. হাফিজুর রহমান, এস এম ইকবাল হোসেন বিপ্লব প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


Spread the love