Spread the love


বোয়ালমারী প্রতিনিধি: ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলার ঘোষপুরের গোহাইলবাড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ের এক ছাত্রী গণ ধর্ষণের স্বীকার হয়েছে। প্রেমিকের ডাকে সাড়া দিয়ে পাঁচ বন্ধুর দ্বারা পাশবিকতার শিকার হয় ওই ছাত্রী। মঙ্গলবার রাত সাড়ে আটটা থেকে ১১টা পর্যন্ত এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অপরাধে বুধবার তিনজনকে ও বৃহস্পতিবার প্রেমিককে আটক করেছে। এ ঘটনায় ওই ছাত্রী বাদি হয়ে বুধবার বিকেলে থানায় মামলা দায়ের করেছে। মামলা নং ২৪। ফরিদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর) মো. শাহিদুল ইসলাম বুধবার বিকেলে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। ভিকটিমকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিসি সেন্টারে পাঠানো হয়েছে। বোয়ালমারী থানা সূত্রে জানা যায়, মাগুরা জেলার মহম্মদপুর উপজেলার বাবুখালী গ্রামের নাসির মোল্যার সাথে মোবাইল ফোনে প্রেম হয় ওই স্কুল ছাত্রীর। ঘটনার দিন প্রেমিক নাসির দেখা করতে এসে মেয়েটিকে মধুমতির চরে নিয়ে যায়। সেখানে প্রেমিক নাসিরসহ ঘোষপুর ইউনিয়নের লংকারচর গ্রামের ভিরু মন্ডলের ছেলে হৃদয় মন্ডল, নিখিল চন্দ্র মন্ডলের ছেলে তারক মন্ডল (১৭), সঞ্জিত মন্ডলের ছেলে সৈকত মন্ডল (১৮), এবং সোহরাব মোল্যার ছেলে নাসির মোল্যা (৩০) পালাক্রমে ধর্ষণ করে। বুধবার বিকেলে পুলিশ তারক মন্ডল, সৈকত মন্ডল ও নাসির মোল্যাকে ও বৃহস্পতিবার সকালে প্রধান আসামি প্রেমিক বাবু মোল্যার ছেলে নাসির মোল্যাকে (২০) গ্রেফতার করেছে।
বোয়ালমারী থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আমিনুর রহমান বলেন, গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে তিনজনকে আজ (বৃহস্পতিবার) আদালতে চালান করে ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হবে। অপর প্রধান আসামি নাসিরকে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আদালতে চালান দেওয়া হবে।


Spread the love