Spread the love

ভাঙ্গা প্রতিনিধি : ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার ভাঙ্গা-মাওয়া মহাসড়ক এবং ফরিদপুর-বরিশাল মহাসড়ক সহ পৃথক ৩ স্থানে সড়ক দুর্ঘটনায় বাসের চালক নিহত ও ২০ জন আহত হয়। আহতদেরকে ভাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে প্রকাশ মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১২ টার সময়ে ভাঙ্গা-মাওয়া মহাসড়কের ভাঙ্গা উপজেলার মালিগ্রাম কলাতলা নামক স্থানে ঢাকাগামী মল্লিক পরিবহন (ঢাকা মেট্রো ব ১৫-৪০৩৮) এর সাথে বিপরীতমুখী সয়াবিন তৈল ভর্তি একটি ট্রাক (যশোর-ড-১১-০৭২৪)সাথে মুখোমুখি সংঘর্য হয়। সংঘর্ষের ফলে বাসটি দুর্ঘটনাস্থল থেকে প্রায় ১.শ গজ দুরে গিয়ে ছিটকে রাস্তার দু,পাশে দেওয়া বেরিকেডের উপর গিয়ে পড়ে। এতে উভয় গাড়ী সামনের অংশ সম্পূর্ন দুমড়ে মুচড়ে যায়। এতে বাসের চালক মাসুদ মিয়া (৫০) ঘটনাস্থলেই নিহত ও কমপক্ষে ১৫ জন যাত্রী গুরুতর আহত হয়। পরে স্থানীয়রা এসে প্রাথমিকভাবে বিধ্বস্ত গাড়ির ভিতর থেকে আহত যাত্রীদের উদ্বার করে। স্থানীয়রা জানান,রাস্তার দু,পাশে বেরিকেড থাকায় স্থানীয়রা আহতদের উদ্বার করতে গিয়ে বাধার সম্মুখীন হয়। এছাড়া বুধবার সকালে একই সড়কের বগাইল এলাকায় কভারভ্যানের চাকা ফেটে রাস্তার উপর উল্টে গিয়ে এর চালক ও হেলপার গুরুতর আহত হয়। এছাড়া ফরিদপুর-বরিশাল মহাসড়কের বিশ্বরোড এলাকায় বুধবার বেলা ১০টার দিকে একটি পিকআপ নিয়ন্ত্রন হারিয়ে গাছের সাথে ধাক্কা লেগে এর চালক ও হেলপার গুরুতর আহত হয়। ভাঙ্গা হাইওয়ে থানার এসআই আনিচুর রহমান জানান, রাত অনুমানিক ১২টার সময়ে দুর্ঘটনার খবর পেয়ে ভাঙ্গা হাইওয়ে থানা পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মিরা দ্রæত ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহত ও আহতদেরকে উদ্বার করে। গুরুতর আহত ১৫ জনকে ভাঙ্গা হাসপাতাল থেকে ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নিহতের ড্রাইভারের লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।


Spread the love