Spread the love

চরভদ্রাসন প্রতিনিধি: জমে উঠেছে ফরিদপুর-৪ চরভদ্রাসনের উপনির্বাচন। আগামী ২৯ মার্চ এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। নির্বাচনকে ঘিরে প্রার্থীদের শেষ মুহুর্তে জমে উঠেছে নির্বাচনী প্রচার-প্রচারনা। নির্বাচনের দিন যতই ঘনিয়ে আসছে ততই প্রার্থীরা তাদের পছন্দের প্রতীক নিয়ে নিজেদের ভোটের পাল্লা ভারী করতে উপজেলা জুড়ে রাত দিন প্রচার-প্রচারনায় মাঠ চোষে বেড়াচ্ছেন।
উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্র জানায়, উপনির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৬জন প্রার্থী দলীয় ও তাদের পছন্দের প্রতীক নিয়ে এ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দিতা করছেন। নৌকা প্রতীকের উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক হাফেজ মোহাম্মদ কাউছার হোসেন ও ধানের শীষ প্রতীকের এ.জি.এম. বাদল আমিন ছাড়াও প্রতিদ্ব›দ্বী অপর প্রার্থীরা হলেন- ফরিদপুর-৪ আসনের সংসদ সদস্য মুজিবুর রহমান চৌধুরী সমর্থিত ও উপজেলা আ’লীগের সাবেক যুগ্নসাধারণ সম্পাদক (স্বতন্ত্র) প্রার্থী মো. আনোয়ার আলী মোল্যা, উপজেলার হরিরামপুর ইউনিয়নের সাবেক ইউপি’ চেয়ারম্যান (স্বতন্ত্র) প্রার্থী কে.এম. ওবায়দুল বারী দিপু খান, (স্বতন্ত্র) প্রার্থী মো. খবিরুদ্দিন শেখ ও প্রয়াত উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেনের ভ্রাতুষ্পুত্র (স্বতন্ত্র) প্রার্থী মো. মাসুদ রানা।
বৃহস্পতিবার সদর বাজারের এক ক্রোকারীজ ব্যবসায়ী কাউছার হোসেন, ঔষুধ দোকান ব্যবসায়ী মো. মিজানুর রহমান, চা দোকান ব্যবসায়ী সাহেব আলী ও পথচারী আঃ ওহাব মোল্যা বলেন, উপজেলায় উপনির্বাচনের দিন যতই ঘনিয়ে আসছে ততই প্রার্থীরা প্রতিদিন বিভিন্ন ধরনের ভোটের গান ও ¯েøাগানে হাট-বাজার সহ গ্রাম, গঞ্জের, আনাচে, কানাচে এবং ভোটারদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে নিজেদের ভোটের পাল্লা ভারী করতে কর্মীরা মেতে উঠেছে।
একইদিন সদর ইউনিয়নের (আনারস মার্কা) প্রতীকধারী চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. আনোয়ার আলী মোল্যা বলেন, নির্বাচনের দিন যতই ঘনিয়ে আসছে ততই আমরা শেষ মুহুর্তের নির্বাচনী প্রচারনায় ব্যস্ত হয়ে পরছি। তিনি আরো বলেন, যদি জনগন চায় তাহলে আগামী ২৯মার্চ উপজেলার উপনির্বাচনে ভোটারদের স্বতস্ফূর্ত ভোটাধিকার প্রয়োগের মাধ্যমে আমার জয় নিশ্চিত বলেও তিনি জানান। এদিকে, নির্বাচনকে সামনে রেখে প্রতিদিন বিভিন্ন দলের প্রার্থী ও কর্মীদের নির্বাচনের পদচারনায় হাট,বাজারের চায়ের দোকান, কাব, সমিতির অফিস, গ্রাম, গঞ্জ সহ সরগরম হয়ে উঠেছে উপজেলার নির্বাচনী মাঠ।


Spread the love