Spread the love


নিজস্ব প্রতিবেদকঃ ফরিদপুর মেডিকেল কলেজে আগামীকাল সোমবার থেকে শুরু করা হবে করোনা ভাইরাস পরীক্ষা কার্যক্রম। ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ ভবনে এর চতুর্থ তলায় মাইক্রোবায়োলজি বিভাগে এই ল্যাব স্থাপন করা হয়েছে। এখন থেকে ফরিদপুর সহ আশাপাশের ৫/৬ টি জেলার জনগন এখন থেকে করোনা ভাইরাস পরীক্ষা করতে পারবেন বলে জানাগেছে।

এ বিষয়ে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডাঃ খবিরুল ইসলাম জানান, আগামীকাল সোমবার সকাল ১০টা থেকে করোনা ভাইরাসের নমুনা সংগ্রহ করে তা পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হবে। তিনি আরো জানান, প্রতিদিন ৯৪ জন রোগীর করোনা ভাইরাসের নমুনা টেস্ট করা যাবে এখান থেকে। তিনি বলেন পর্যায়ক্রমে ছয় জন চিকিৎসক এখানে দায়িত্ব পালন করবেন। এছাড়া ঢাকা থেকে আসা দুই জন টেকনোলজিষ্ট আগামী ২১দিন এখানে থাকবে পর্যবেক্ষনে। আমরা এখানে সিভিল সার্জন অফিসের সাথে সমন্বয় রেখে কাজ করবো। সিভিল সার্জন অফিস থেকে নমুনা পাঠাবে সেই নমুনা আমরা প্রতিদিন সকাল নয়টার দিকে সংগ্রহ করে টেষ্টের জন্য নেব। এরপর ৫ ঘন্টা পরে সেই নমুনার রির্পোট আমরা প্রদান করতে পারবো বলে আশা করছি। তিনি বলেন আমাদের এখানে সরাসরি কোন নমুনা সংগ্রহ করা হবে না। প্রথম পর্যায়ে এক হাজার করোনা ভাইরাস পরীক্ষার জন্য কীট পেয়েছি। পর্যায়ক্রমে আরো কীট আসবে বলেও আইইডিসিআর থেকে জানানো হয়েছে।

জানাগেছে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজের মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের প্রধান ডাঃ আশরাফুল আলম করোনা টেষ্ট এর মূল দায়িত্ব পালন করবেন। তিনি এ বিষয়ে খুবই এক্সপার্ট। ২/৩ মাস আগে ঢাকার আইইডিসিআর থেকে বদলি হয়ে এখানে বিভাগীয় প্রধান হিসেবে যোগ দিয়েছেন। আর এই বিভাগের প্রধান হিসেবে তার উপর এই দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য কদিন আগে সাবেক মন্ত্রী, আওয়ামীলীগের উপদেষ্টা পরিষদের অন্যতম সদস্য, এলজিআরডি সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশারফ হোসেন এমপি সাংবাদিকদের জানিয়ে ছিলেন আমি স্বাস্থ্যমন্ত্রীর সাথে কথা বলেছি খুব দ্রুতই করোনা টেষ্ট শুরু হবে ফরিদপুরে। তার উদ্যোগেই এই অঞ্চলের মধ্যে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজে প্রতিষ্ঠিত হলো করোনা টেষ্টের জন্য।

করোনা ভাইরাস ঝুঁকিতে ফরিদপুর রয়েছে সবচেয়ে উচ্চ ঝুঁকির মধ্যে। এরই মধ্যে দুটি উপজেলার ৪জন রোগি শনাক্ত হয়েছে। সাধারন মানুষ প্রথম থেকেই দাবি জানিয়ে আসছিলেন ফরিদপুর মেডিকেল কলেজে করোনা টেষ্টের জন্য। আর আগামীকাল সেই কার্যক্রমের বাস্তবায়ন হওয়াতে ফরিদপুরের সাধারন মানুষ দারুন উচ্ছ্বসিত।


Spread the love