Spread the love

শ্রাবণ হাসান : করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবে সরকারের কর্মকর্তা, কর্মচারীগণ ছুটি ভোগ করে থাকলেও ঝুঁকি নিয়ে গ্রামাঞ্চলের তৃণমূলে সেবা দিয়ে যাচ্ছেন সারাদেশের প্রায় ১৫শ’ উপজেলা পরিষদের কর্মকর্তা- কর্মচারীরা। এতে ৪শ’৯৮ জন সিএ ও ১হাজার ২জন অফিস সহায়ক এবং মাষ্টাররোলে নিয়োগকৃত মালী ও পরিছন্নতা কর্মীরা কাজ করছেন। বাংলাদেশ উপজেলা পরিষদ এমপ্লয়ীজ এসোসিয়েশন এর একজন সম্মানিত সদস্য এবং ফরিদপুর জেলার সালথা উপজেলা পরিষদের সিএ মোঃ অারিফ হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, দেশে করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) প্রাদুর্ভাব দেখা দেয়ার পর থেকে স্বাস্থ্যবিভাগের পাশাপাশি উপজেলা পরিষদ কাজ করে চলেছে। এক্ষেত্রে দেশের অনেক সরকারি দপ্তরে ছুটি থাকলেও উপজেলা পরিষদ সিএ ও অফিস সহায়ক এবং মালী ও পরিছন্নতা কর্মীরা নিজেদের দায়িত্ব পালন করে চলেছেন। বিদেশ ফেরতদের হোম কোয়েন্টাইন নিশ্চিত করা থেকে শুরু করে ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম সুষ্ঠভাবে সম্পন্ন করতে তারা কাজ করছেন। জানা গেছে, মন্ত্রণালয় উপজেলা প্রশাসনের সকল প্রকার দাপ্তরিক কার্য রির্পোট রির্টান প্রেরণসহ জরুরি ত্রাণ কার্যক্রম ভিজিএফ, ভিজিডি, জি.আর, জেলেদের বিশেষ ভিজিএফ, ১০ টাকা কেজি চাল ও বতর্মান প্রেক্ষাপট প্রবাসীদের তালিকা, হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করাসহ সকল কাজ সুষ্ঠভাবে প্রণয়ন ও বিতরণ করছে উপজেলা পরিষদ সিএ’রা। সিএ মোঃ অারিফ হোসেন বলেন, দেশের এই দুর্যোগমুহূর্তে ঝুঁকি হলেও জনগণের সেবা দিয়ে যাবেন বলে তারা ঐক্যবদ্ধ। সেবা প্রদানে কোনো ত্রুটি নেই তাদের।


Spread the love