Spread the love


নিজস্ব প্রতিবেদকঃ ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলার দাদপুর ইউনিয়নের বাজিতপুর গ্রামে জমিজমা সংক্রান্ত ঘটনার জের ধরে এক প্রবাসীর বসত বাড়িতে প্রবেশ করে হেনস্তা ও প্রাণনাশের অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন করেছে প্রবাসী আমিন মিয়ার স্ত্রী রিক্তা খানম। জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে উচ্ছেদের হুমকি, অপহরণ ও প্রাণনাশের হুমকী-ধামকী সহ নানা অভিযোগ এনে দাদপুর ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক বকুল বিশ্বাস ও ইউনিয়ন যুবদল সভাপতি সালিমুল হকের বিরুদ্ধে মঙ্গলবার দুপুরে নিজ বাড়িতে এই সংবাদ সম্মেলন করা হয়।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে রিক্তা খানম বলেন, তার স্বামী আমিনুর রহমান (আমিন) দীর্ঘদিন সৌদি প্রবাসে ছিলেন। তার কষ্টার্জিত টাকায় কয়েক বছর আগে বাজিতপুর গ্রামের বাসিন্দা আজিজুর ও সামচুল হকের ওয়ারিশ এবং ক্রমিক ওয়ারিশগণের নিকট থেকে স্থানীয় মোবারকদিয়া মৌজার ৪৫নং খতিয়ানের বিএস ৩৮৬ নং দাগের সাড়ে ৫.২৯ শতক জমি ক্রয় করি। এই জমি দাবী করে বকুল বিশ্বাস ও সালিমুল হক আমার পরিবারের উপর চড়াও হয়। ভিটা-বাড়ী থেকে উচ্ছেদ, প্রাণে মেরে ফেলা এমনকি তার শিশু মেয়ে আছমিনকে অপহরণের হুমকী-ধামকী দিচ্ছে বলে অভিযোগ করেন রিক্তা খানম। সংবাদ সম্মেলনে জমি ফিরে পাওয়া ও জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে সরকারের উর্ধতন কর্তৃপরে হস্তপে কামনা করেন রিক্তা খানম।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন, চিতারবাজার বণিক সমিতির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মো. লুৎফর রহমান, ইউপি সদস্য মোঃ মঙ্গল মোল্যা, মুনজুরুল ইসলাম, রিমি পারভীন প্রমুখ।
এদিকে এ বিষয়ে জানতে সালিমুল হক(সলিম) এর সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, আমাদের বিরুদ্ধে ভিত্তিহীন মিথ্যা তথ্য দিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছে। তারা আমাদের কাছ থেকে যে জমি কিনেছে তার থেকে আরো বেশি জমি ভোগ দখলে আছে বলে তিনি জানান। তিনি বলেন আমি বিষয়টি স্থানীয় থানা ও এসপি সাহেবকে জানিয়েছি। এছাড়া স্থানীয় চেয়ারম্যান কয়েকবার মিমাংসা করার পরও সমাধান করতে পারেনি। তিনি সমাধানের পথে বাধা হিসেবে সাবেক এক চেয়ারম্যান এর সংশ্লিষ্টতার কথা জানান।
এ বিষয়ে বোয়ালমারী থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আমিনুর রহমান জানান, ওই বাজারের জমির ব্যাপারে জিডি হয়েছে। আমরা দুই পক্ষকেই আইনগত ভাবে তাদেরকে কোর্টে যাওয়ার ব্যাপারে বলেছি। এছাড়া এলাকায় আইনশৃংখলা যাতে কোন অবনতি না হয় সে ব্যাপারে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।


Spread the love