Spread the love

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ ফরিদপুর সিএন্ডবি ঘাট দখলসহ নানা অনিয়মের অভিযোগ এনে ভুক্তভোগী এলাকাবাসীর পক্ষে রবিবার বেলা ১১ টায় সিএন্ডবি ঘাট এলাকায় সংবাদ সম্মেলন করেছেন ফরিদপুর সদর উপজেলার ডিক্রিরচর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ মেহেদী হাসান মিন্টু ফকির।

এ সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ফরিদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক অর্থ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা মাহাবুবুর রহমান খানসহ বিভিন্ন ব্যক্তিবর্গ।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে ভুক্তভোগী এলাকার মানুষের পক্ষে ইউপি চেয়ারম্যান বলেন, সন্ত্রাসীদের গডফাদার, ভুমি দস্যু মোঃ সিদ্দিকুর রহমান গং এর অত্যাচার, হামলা, নির্যাতনে আমরা অতিষ্ট।

ফরিদপুরের সিএন্ডবি ঘাট ১ কোটি ২০ লক্ষ টাকায় ইজারাদার হয়েও আমি এই ঘাট পাইনি। ক্ষমতা আর অর্থের জোড়ে সিদ্দিক গং ঘাট দখল করে রেখেছে।

এরকম জমিসহ নানা স্থাপনা তারা দখল করেছে। প্রতিবাদ করায় আমার ও আমার পরিবারের বিরুদ্ধে হামলা, মামলাসহ নানা ষড়যন্ত্র অব্যাহত রেখেছে। 

এসময় সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত মাহাবুবুর রহমান খান বলেন, শান্ত ফরিদপুর অশান্ত করছে কারা? আমি ২০১৭ সালে সিএন্ডবি ঘাট ৯৬ লক্ষ টাকায় ইজারা পেয়েও বুঝে পাইনি।

অথচ এর অর্ধেক মূল্যে ওরা ইজারা পায় কিভাবে? এই ব্যাপারে দুদকে লিখিত অভিযোগ দিয়েও কোন প্রতিকার পাইনি।

ফরিদপুরের যত হাট, ঘাট, ব্যবসা, বাণিজ্য সব ওদের দখলে। অনুপ্রবেশকারীরা জানেনা আওয়ামী লীগ করে কারা? পুরো দলটাকে শেষ করে দিয়েছে। ঐতিহ্যবাহী ফরিদপুর প্রেসক্লাবকেও দখল করেছে। প্রেস ক্লাবে সাংবাদিকতা পেশা ছাড়াও বিভিন্ন ব্যক্তি স্থান পেয়েছে, এখনও প্রকৃত সাংবাদিক প্রেস ক্লাবের সদস্যদের তালিকায় ঠাই পায় নাই।

সিদ্দিক গংদের দ্বারা ক্ষতিগ্রস্থ বিভিন্ন ব্যক্তিবর্গ সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করেন তাদের বিভিন্ন বিষয় দখলের অভিযোগ তুলে ধরেন।


Spread the love