Spread the love

নিজস্ব প্রতিবেদক: ফরিদপুর শহরের পুলিশ লাইনস্ হাই স্কুলের দশম শ্রেণীর ছাত্রী শর্মি নিজের জন্মদিনে জাঁকজমক করে কেক না কেটে ঐ অর্থ দিয়ে দরিদ্র ও অসহায় মানুষের মাঝে খাদ্য বিতরন করেছেন। আজ মঙ্গলবার শর্মির ১৫ তম জন্মদিন । তার মা রিবা আক্তার ও বাবা সাগর ভদ্র জানান, আমাদের একমাত্র সন্তান শর্মি’র জন্মদিন বরাবরই কেক কেটে আনন্দ উল্লাসের মধ্যে দিয়ে পালন করে থাকি, এটা তার পছন্দ নয়। এবার সে সাফ জানিয়ে দিয়েছে জীবনে যতদিন বেঁচে থাকবো জন্মদিনে আর কেক কাটা নয়, দরিদ্র, অসহায় ও পথশিশুদের সাথে অনন্দ ভাগাভাগি করে নিতে চাই তাদের মুখে খাবার তুলে দিতে চাই। সে জন্যই আজ তার জন্মদিনে দুপুরে ফরিদপুর শহরের ষ্টেশন রোড, রাজেন্দ্র কলেজ মোড়, চৌরঙ্গী মোড় ও চকবাজার এলাকায় পথ শিশু, দরিদ্র ও অসহায় মানুষের মধ্যে রান্না করা খাবার বিতরন করেছে শর্মি নিজ হাতেই।

এ ব্যাপারে স্কুল ছাত্রী শর্মি জানান, দরিদ্র ও অসহায় মানুষের মুখে খাবার তুলে দিয়ে তাদের মুখে হাসি দেখে আমি যতটা আনন্দ পাই, কেকে কেট বন্ধু বান্ধবীদের নিয়ে হৈ চৈ করে সেই আনন্দ পাই না । তাই সিদ্ধান্ত নিয়েছি যতদিন বেঁচে থাকবো জন্মদিনে দরিদ্র মানুষদের সাথেই কাটাবো। ভবিষৎতে কি হতে চাও এমন এক প্রশ্নের জবাবে স্কুল ছাত্রী শর্মি জানান, ভবিষতে আমি একজন রাজনিতীবিদ হতে চাই। বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে বুকে ধারন করে এদেশের মানুষের কল্যানে নিজেকে নিয়োজিত করতে চাই ।

শর্মি জন্মদিন উপলক্ষে খাদ্য বিতরন কালে তার বাবা সাগর ভদ্র ও ‘হাত বাড়িয়ে দেই’ এর প্রতিষ্টাতা কবি আলিম আল রাজি আজাদ উপস্থিত ছিলেন।


Spread the love