Spread the love

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ বুধবার (২ সেপ্টেম্বর) বিকালে ফরিদপুর সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মাসুম রেজা গোপন অভিযোগের ভিত্তিতে কানাইপুর বাজারে অবস্থিত বর্ষা অটো রাইচ মিলে অভিযান পরিচালনা করেন। এ সময় অটো রাইচ মিলের নিজস্ব ট্রাকে লোড করা ৩০০ বস্তা চাউলে সরকারী খাদ্য অধিদপ্তরের বস্তা ব্যবহার করে বাজারজাত করা এবং নতুন ও পুরাতন চাউলের সংমিশ্রণ করার অপরাধে বর্ষা অটো রাইচ মিলকে ৪০ হাজার টাকা অর্থদন্ড প্রদান করা হয়।

ফরিদপুর সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার বলেন, অভিযোগ ছিলো তিনি নতুন ও পুরাতন চাউল একই বস্তায় বাজার জাত করে এবং নিম্নমানের পুরাতন চাউল সরকারি খাদ্য ভান্ডারে সরবরাহ করে, এই অভিযোগ পাওয়ার সাথে সাথে সূযোগ্য জেলা প্রশাসক অতুল সরকার স্যারের নির্দেশনায় বর্ষা অটো রাইচ মিলের প্রয়োজনীয় কাগজ পত্র ও মিলে থাকা চাউলের গুনগত মান যাচাই বাছাই করে অভিযোগের সততা মিল পাওয়াতে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনে অর্থদন্ড প্রদান করি এবং তারা যে চাউল সরকারি খাদ্য ভান্ডারে সরবরাহ করেছে সেটা ট্রাক থেকে আনলোড না করার নির্দেশ দেই।

এছাড়া তিনি আরো জানিয়েছেন, ট্রাকে থাকা চাউলের গুনগত মান পরীক্ষা করার জন্য তিন সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করি, যাদের রিপোর্টের ভিত্তিতে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। তদন্ত রিপোর্ট খারাপ আসলে উক্ত মিল সিলগালা করা হবে বলেও হুশিয়ারী করেছেন মিল কৃর্তপক্ষকে।

ফরিদপুর জেলা সেনেটারি ইন্সপেক্টর ও নিরাপদ খাদ্য পরিদর্শক বজলুর রশিদ খান বলেন, অভিযান চালিয়ে নিম্নমানের এই চালগুলোর স্যাম্পল ঢাকায় নিরাপদ খাদ্য অধিদপ্তরের ল্যাবে পাঠানো হবে পরীক্ষার জন্য। রিপোর্ট খারাপ আসলে মিল মালিকের বিরুদ্ধে মামলা করা হবে এবং পরবর্তী আইনানুগভাবে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক কর্মকর্তা, জেলা ভোক্তা অধিকারের সহঃ পরিচালক, জেলা ইন্সপেক্টর ও নিরাপদ খাদ্য পরিদর্শক সহ কোতোয়ালী থানা পুলিশের একটি বিশেষ টিম।


Spread the love