আজ মঙ্গলবার, ১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ , ১লা ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ,রাত ৮:৩১

সারা বাংলাদেশের ন্যায় ফরিদপুরের সবজি বাজার গুলোতেও আগুন

মোহাম্মদ পারভেজ হাসান রাজিবঃ উঠতে শুরু করেছে শীতের সবজি বাঁধাকপি, লালশাক, ফুলকপি, লাউ, কুমড়া, মুলা, গাজর সহ বিভিন্ন ধরনের শীতকালীন সবজির সমাহারে ভরে গেছে বাজার।

কিন্তু তারপরেও সকল প্রকার সবজি বিক্রি হচ্ছে চড়া দামে। ফরিদপুরের বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা যায় যে প্রত্যেকটি বাজারেই শীতকালীন সবজির আমদানি ব্যাপক।

কিন্তু তা ও সাধারণ ক্রেতাদের নাগালের বাইরে প্রায়। ফরিদপুর, ও ফরিদপুর সদরের বাজারগুলো তথা খলিলপুর, শিবরামপুর, এবং চর মাধবদিয়া ইউনিয়নের মমিনখার হাট বাজারে বাঁধাকপি, ফুলকপি, ডাটা, ধনিয়াপাতা, মুলা, লাউ, পুঁইশাক, বডবডি, ঝিঙ্গা, বেগুন, টমেটো সহ সকল প্রকার শীতকালীন সবজি তে টইটুম্বুর। ফলন ভালো হওয়ায় খুশি সকল প্রকার কৃষকরা।

কিন্তু অসন্তুষ্ট জানিয়েছেন সাধারণ ভোক্তা এবং ক্রেতারা। কিছু সাধারন ক্রেতার সাথে কথা বলে জানা যায় যে প্রত্যেক সবজির এত উচ্চ এবং চড়া মূল্যের কারণে তাদের ক্রয় সীমার বাইরে চলে যাচ্ছে সবজি, মরিচ, পেঁয়াজ সহ সকল প্রকার নিত্যপ্রয়োজনীয় কাঁচা বাজার। অনেক পাইকাররা ও খুচরা বিক্রেতারা বলেন প্রচুর আমদানি থাকলেও কৃষকদের কাছ থেকে তাদের কে চড়া মূল্যে দিয়ে কিনতে হচ্ছে। সাধারণ ভোক্তদের দাবি অতি শীঘ্রই এই সংকট কাটিয়ে উঠে শীতকালীন সবজির দাম কমবে এবং তাদের নাগালে থাকবে ।

বাজার মনিটরিং করার জোড় দাবিও জানান তারা।
ক্রেতা এবং বিক্রেতারা উভয়ই বলছেন তারা দ্রুত এই সমস্যার সমাধান চান।

জনমতে প্রশ্ন ফলন ভালো এবং আমদানি প্রচুর হওয়ার পরও কেনো এত চড়া মূল্য শীতকালীন সবজী বাজারে?

     আরো পড়ুন