আজ বৃহস্পতিবার, ১৪ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ , ২৮শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ,বিকাল ৫:৩৩

ফরিদপুরে জিয়াউল হাসান মিঠু স্বচ্ছ রাজনীতিবীদ হিসেবে আলোচনায়

রবিউল হাসান রাজিবঃ ফরিদপুর জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি এবং সাবেক সাধারণ সম্পাদক, দক্ষিণ বঙ্গের শ্রেষ্ঠ বিদ্যাপিঠ সরকারি রাজেন্দ্র কলেজ ‘রুকসুর’ সাবেক ভি.পি এবং সাবেক জি.এস, বর্তমানে জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য জিয়াউল হাসান মিঠু। তার দীর্ঘদিনের রাজনীতির প্রেক্ষিতে স্বচ্ছ রাজনীতি হিসেবে তার নাম আলোচনায় রয়েছে সর্বস্তরের মানুষের কাছে।

তৎকালীন তুখোড় ছাত্রনেতা ৯০এর গণঅভ্যুথানে আওয়ামীলীগ মনোনীত সকল নির্বাচন, ১/১১ তে ও ২০০৮ সালের জাতীয় নির্বাচনে বিশেষ ভুমিকা পালন করেছে দলীয় কর্মকান্ডের নির্দেশ হিসেবে।

ফরিদপুর জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক কমিটি কেন্দ্রীয় কমিটির লিখিত বিজ্ঞপ্তিতে বিলুপ্ত ঘোষণা করায় কেন্দ্রীয় কমিটির যুবলীগ নেতাদের নির্দেশনায় অস্থায়ী দায়িত্ব পালন হিসেবে ফরিদপুর পৌরসভার নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী অমিতাভ বোসের নির্বাচনী প্রচারণা ও বিভিন্ন কর্মকান্ড পরিচালনা বাস্তবায়ন করেছে।

একঝাঁক সাবেক ছাত্রলীগ নেতা সহ বর্তমানে যুবলীগ নেতারা তার সাথে ছিলেন। বর্তমানে ফরিদপুর জেলা যুবলীগের কমিটি শূন্য থাকায় সাবেক এই ছাত্রলীগ নেতা জিয়াউল হাসান মিঠু নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন।

জিয়াউল হাসান মিঠু ফরিদপুর জেলা আওয়ামী রাজনীতিতে পরীক্ষিত এক ত্যাগী মুজিব আদর্শের সৈনিক। বিগত দিনে স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলন, বিএনপি-জামাত জোট সরকারের আমলে আন্দোলনে বহু অত্যাচার নির্যাতন, মামলা হামলার স্বীকার হয়েও রাজনীতির মাঠে সক্রিয় থেকেছেন।

গত ১০ই ডিসেম্বর ২০২০ ফরিদপুর পৌরসভার নির্বাচনে সকল নির্বাচন কেন্দ্রে যুবলীগ নেতাদের নিয়ে নৌকা প্রতীক প্রার্থী অমিতাভ বোষের নির্বাচনী কর্মকান্ডে ব্যাপক ভূমিকা পালন করেছে। এক্ষেত্রে সে বেশ আলোচনায় রয়েছে। বিগত দিনের রাজনীতির বিষয়টিও অনুসরণ করলে দেখা যায় সে স্বচ্ছ রাজনীতির নেতা হিসেবে দলের নির্দেশ পালন করেছেন।

আগামীতে ফরিদপুর জেলা আওয়ামী যুবলীগের কমিটির সভাপতি হিসেবে বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা সহ সাধারণ মানুষ অনেকেই বলেন স্বচ্ছ রাজনীতির জন্য সবচেয়ে যোগ্য এবং সকলের গ্রহনযোগ্য এই জিয়াউল হাসান মিঠু।

     আরো পড়ুন