Spread the love

মিঠুন গোস্বামী , রাজবাড়ী  : সকল প্রতিকূলতা পেরিয়ে পাংশা বাসীর ভালোবাসায় নিজ নির্বাচনী এলাকায় বীরের বেশে ফিরলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ফরিদ হাসান ওদুদ। আজ শনিবার (৫জুন) সকালে রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ফরিদ হাসান ওদুদ ঢাকা থেকে রাজবাড়ী আসলে হাজার হাজার  মোটরসাইক নিয়ে কর্মী সমর্থকরা তাকে অভিনন্দন জানিয়ে মোটরসাইক শোডাউনের মধ্যে দিয়ে পাংশায় নিয়ে আসেন।

এ সময় পাংশা টেম্পু স্টান্ডে অবহেলিত আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীরা পথসভার আয়োজন করেন। উক্ত পথসভায় নির্যাতিত উপজেলা কমিটির আহবায়ক ও জেলা পরিষদের সদস্য আহম্মদ হোসেনের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন ,সাবেক উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যক্ষ বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ নজরুল ইসলাম (জাহাঙ্গীর),পাংশা উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক দিবালোক কুন্ডু জীবন, সাবেক পাংশা উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ইদ্রিস মন্ডল, পাংশা উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যাপক নজরুল ইসলাম খান, যশাই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান অধ্যাপক সিদ্দিক মন্ডল। এছাড়াও মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন, পাট্টা ইউনিয়ন আওয়ামিলীগ যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক ইউনুছ আলী বিশ্বাস,সরিষা ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুর সোবাহান হোসেন, পাংশা উপজেলা যুবলীগের অন্য তম নেতা মারুফ খান সহ স্থানীয় নেতাকর্মী।

বক্তারা বলেন, পাংশা উপজেলা পরিষদের একাধিক বার নির্বাচত চেয়ারম্যান অধ্যাপক ফরিদ হাসান ওদুদ কে এমপির দেওয়া ডিও,লেটারে  মিথ্যা ও সাজানো অভিযোগ এনে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হলেও তার থেকে খারিজ পেয়েছেন চেয়ারম্যান। শুরু তাই নয় টেন্ডার বাজ,চাদাবাজ,ভূমি দস্যু, সন্ত্রাসী এমপি জিল্লুল হাকিমের সকল অপকর্ম সাধারণ মানুষ জেনে গেছে। তাকে এখন রাজবাড়ী ২ আসনের মানুষ ঘৃণা ভরে প্রত্যাখ্যান করেছে। বক্তারা এমপি কে উদ্দেশ্য করে বলেন আপনি ঢাকা বসে আওয়ামীলীগ  নিধনের পরি কল্পনা করেন সেটাও সবার জানা আছে। দেশে যখন মহামাড়ি করোনা ভাইরাসের কারণে সাধারণ মানুষের জীবন যাপন কষ্টো সাধ্য হয়ে পড়ে তখন আপনি নিজের চিন্তা করে ঢাকা বসে থাকেন, এই হলো আপনার রাজনীতি।

পরে পাংশা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ফরিদ হাসান ওদুদ বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী মানবতার মা শেখ হাসিনা আপনার সুদৃষ্টি না পেলে রাজবাড়ী তথা পাংশার আওয়ামী ধ্বংস করে ফেলবে এমপি জিল্লুল হাকিম। তিনি তার পছন্দ মত রাজনীতি করে বলে প্রবীণ আওয়ামী নেতা কর্মীরা আজ অবহেলিত। তিনি এমপি বলে কি তার পছন্দ যার হবে না তার বিরুদ্ধে ডিও,লেটারে ইচ্ছা মত বাজে মন্তব্য করবেন। তিনি আমার বিরুদ্ধে স্বজনপ্রীতির কথা উল্লেখ করেন,অথচ তার নিজের লোক দিয়ে রাজবাড়ী ২ আসনে কমিটি গঠন করে চলছে। তার নামে বেনামে রয়েছে হাজার হাজার কোটি টাকা। তার বিরুদ্ধে রয়েছে হিন্দুদের জমি জোর দখলের অভিযোগ। রাজবাড়ী তথা পাংশা, বালিয়াকান্দি, কালুখালির মানুষের ব্যক্তি স্বাধীনতা হরন করেছেন তিনি।

উল্লেখ্য, গত ৫ মে স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-সচিব মোহাম্মদ সামসুল আলম স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। তবে গত ২ জুন প্রধান বিচারপতি সহ ৭ জন বিচারপতির বেঞ্চে উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যাপক ফরিদ হাসান ওদুদ কে সকল অভিযোগ থেকে খারিজ করে দেন।


Spread the love