Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বোয়ালমারী প্রতিনিধি: ফরিদপুরের বোয়ালমারীতে শিশু ধর্ষণ চেষ্টা  মামলা দায়েরের ২২ ঘন্টার মধ্যে  আদালতে অভিযোগপত্র জমা দিয়েছে পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে বোয়ালমারী উপজেলায়। গত শুক্রবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে এ অভিযোগপত্র জমা দেন ওই মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বোয়ালমারী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই)  মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেন ।পুলিশ ও এজাহার সুত্রে জানা যায়, ফরিদপুরের সালথা উপজেলার আটঘর ইউনিয়নের জয়কালি গ্রামের বাসিন্দা আরিফ দর্জির (৩০) বোয়ালমারী উপজেলার দাঁদপুর ইউনিয়নের একটি গ্রামের এক কিশোরীর (১৪) বন্ধবীর (১৩) সাথে প্রেমের সম্পর্ক  ছিল। আরিফ দিনে ও রাতে ওই কিশোরীর সাথে দেখা করতো। এ বিষয়টি ওই কিশোরীর বান্ধবী জানতো। বান্ধবী আরিফকে এ ভাবে তার বন্ধবীর সাথে দেখা করতে নিষেধ করে। এর উত্তরে আরিফ বান্ধবীকে এ কাজে সহযোগিতার করার প্রস্তাব দেন। কিন্তু ওই কিশোরী এ প্রস্তাব নাকচ করে দেন। এর জের ধরে  আরিফ দর্জি ক্ষিপ্ত হয়ে গত  ৮ জুন  রাত ৮টার দিকে ওই কিশোরীর বাড়ীর পূর্ব পাশে টিউবওয়েল হাত মুখ ধুতে গেলে  আগে থেকে ওৎ পেতে থাকা  আরিফ দর্জি  মুখে গামছা বেধে জোর পূর্বক  পূর্ব দিকে পাট ক্ষেতের মধ্য নিয়ে  ধর্ষণের চেষ্টা করে।  ধর্ষণ করতে না পেরে আরিফ ওই কিশোরীক  মারধর করে। ধস্তাধস্তির একপর্যায়ে কিশোরী আরিফের হাত থেকে ছুটে গিয়ে চিৎকার করতে করতে  বাড়ীর দিকে দৌড়ে চলে আসে। পরবর্তীতে আশ পাশের লোকজন ওই কিশোরীর  চিৎকার শুনে তাকে উদ্ধার করে। এ ব্যাপারে ওই কিশোরীর বাবা বাদী হয়ে  গত ১০ জুন রাত সাড়ে ১০টার দিকে বোয়ালমারী থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের ২২ ঘন্টার মধ্যে তদন্ত কাজ শেষ করে গত শুক্রবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে অভিযোগপত্র জমা দেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই  মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেন বলেন, মামলাটির তদন্ত ভার পাওয়ার পর প্রথমে আসামি আরিফকে গ্রেপ্তার করি। জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে তিনি দোষ স্বীকার করেন। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ফরিদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিএসবি) মো. তরিকুল ইসলাম বলেন, ২২ ঘন্টার মধ্যে ধর্ষন চেষ্টার এ মামলাটির আসামি গ্রেপ্তারসহ তদন্তকাজ শেষ করে গত শুক্রবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে অভিযোগপত্রটি আদালতে জমা দেওয়া হয়েছে।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •