Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

রূপসা প্রতিনিধি : রূপসায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ইউপি সদস্য কর্তৃক মারপিট করার ঘটনা ঘটেছে। থানায় লিখিত মামলার প্রেক্ষিতে জানা যায়, গত ২৮ জুলাই বিকালে আইচগাতী ইউনিয়ন ওয়ার্ড মেম্বর আকলিমা খাতুন তুলিসহ তার লোকজন সন্ত্রাসী হামলা চালায় ডকইয়ার্ড ব্যবসায়ী মো. শাহজাহান হাওলাদার ও তার পরিবার সদস্যদের উপর। ইউপি সদস্য তুলি বাহিনীর হামলায় আহত হন সিংহেরচর গ্রামের মো. শাহাজাহান হাওলাদার (৬০), ছেলে মো. সোহাগ হাওলাদার (৩৪) ও মো. হাসান হাওলাদার (৩২), ভাই মো. জাকির হাওলাদার (৫৫) ও ছেলে মো. রুবেল হাওলাদার (৩১), ভাই মো. জাহাঙ্গীর হাওলাদার (৪৮) সহ পরিবার অন্যান্য সদস্যদের মারপিট করে গুরুতর আহত করেছে। স্থানীয়রা আহতদের খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন।

পরে শাহজাহান হাওলাদর বাদী হয়ে ছয় জনকে আসামী করে- ১) মো. নুরুজ্জামান সরদার (৬০), পিতা- সলেমান সরদার, ২) লিমন সরদার (৩৫), পিতা- মো. নুরুজ্জামান সরদার, ৩) আকলিমা খাতুন তুলি (৫০) স্বামী নুরুজ্জামান সরদার, ৪) ইমন সরদার (৩০), পিতা- নুরুজ্জামান সরদার, ৫) মো. আরিফ (৩২), পিতা- মৃত জসিম, ৬) মো. বদিউজ্জামান সরদার (৫৫), পিতা- সলেমান সরদার, সর্বসাং- সিংহের চর, রূপসা, খুলনাসহ অজ্ঞত ১০/১৫ জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেন।

মামলার এজাহার থেকে পাওয়া যায়, আসামী ইউপি সদস্য আকলিমা খাতুন তুলির সাথে নির্বাচনী বিষয়াদি নিয়ে দীর্ঘদিন মো. সোহাগ হাওলাদারের বিরোধ চলে আসছে। উক্ত বিরোধের জের হিসেবে আসামী পক্ষের লোকজন লোহার রড়, হাতুড়ীসহ দেশী অস্ত্র-শস্ত্র নিয়া সন্ত্রাসী হামলা চালায় এবং গুরুতর আহত করে। আকলিমা খাতুন তুলি মেম্বার হওয়ায় ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে মানুষের প্রতি অন্যায় অবিচার করে আসছেন ভুক্তভোগীরা জানান।

এলাকাবাসী জানায়, শাহজাহান হাওলাদর এর বড় ছেলে আসছে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন করবে জানায় এবং এলাকায় প্যানা/পোষ্টার প্রচার করেন। সে কারণে বর্তমান ইউপি সদস্য মনে মনে ক্ষুব্দ হয়ে এ ঘটনা ঘটিয়েছে। উক্ত হামলায় শাহজান হাওলাদরের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ডকইয়ার্ডের মূল্যবান মালামাল ও তার কাছে থাকা ৫০ হাজার টাকা এবং ছেলে মো. সোহাগ হাওলাদার এর কাছে ২০ হাজার টাকা ছিনতায় হয়েছে তা মামলায় জানা যায়।

এ ব্যাপারে রূপসা থানা অফিসার ইনচার্জ সরদার মোর্শারফ হোসেন জানান, শাহজাহান হাওলাদর বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছে। ঘটনার পর আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি এবং তাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে। মামলা নং- ১৪, তাং- ৩০/০৭/২০২১ ইং।


Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •