Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বি এম রাকিব হাসান, খুলনা : খুলনার ডুমুরিয়া উপজেলায় এ বছর তরমুজ ও সবজির বাম্পার ফলনে কৃষকের মুখে ফুটেছে এক চিলতে হাসি। ফলন ভালো হওয়ায় প্রান্তিক কৃষকেরা ব্যাপক লাভবান হয়েছে। মৎস্য ঘেরের আইলে সবজির পাশাপাশি মালচিং পদ্ধতিতে তারা অসময়ের তরমুজ চাষাবাদ করেছেন। তরমুজ গ্রীষ্মকালীন ফল হলেও এবার ডুমুরিয়াতে এর বেশ সাড়া পড়েছে। কৃষি বিভাগের হিসাব মতে এবছর ২৬০ হেক্টর জমিতে তরমুজের আবাদ হয়েছে।
বিশেষত অফ-সিজনে তরমুজের বাম্পার ফলনে বড় লাভের সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে কৃষকের সামনে। এতে করে চলতি মৌসুমে সবজিতে হওয়া লোকসান তরমুজে পুষিয়ে নেয়ার সুযোগ দেখছেন কৃষকেরা।
সংশ্লিষ্ট স‚ত্রে জানা গেছে, কৃষিপ্রধান খুলনার ডুমুরিয়া উপজেলার প্রত্যন্ত জনপদের প্রান্তিক ও ক্ষুদ্র কৃষকেরা বিভিন্ন প্রকার মৌসুমি সবজির চাষের পাশাপাশি রসালো ফল তরমুজের আবাদ করেছেন। সঠিক সময়ে নিয়মিত পরিচর্যা করে সবজির পাশাপাশি তরমুজেরও বাম্পার ফলন পেয়েছেন তারা।

সবজিতে তুলনাম‚লকভাবে লাভ কম হলেও অসময়ে তরমুজের বাম্পার ফলন ও বাজার দর ভালো থাকায় অধিক লাভের অপেক্ষায় কৃষকেরা। উপজেলার তরমুজ চাষিরা এবার হলুদ ও সবুজসহ একাধিক উন্নতজাতের তরমুজের আবাদ করেছেন।

সরেজমিনে উপজেলার ধামালিয়া, রঘুনাথপুর, শাহাপুর, খর্ণিয়া, আটলিয়া, মাগুরাঘোনা, শোভনা, শরাফপুর, ভাÐারপাড়া, গুটুদিয়া, মাগুরখালী ও ডুমুরিয়া সদরসহ ১৪টি ইউনিয়নের সব এলাকার আবাদযোগ্য জমিসহ মৎস্য ঘেরের বেঁড়িতে চাষাবাদ হয়েছে বিভিন্ন ধরনের উন্নতজাতের সবজিসহ তরমুজের।
ওইসব এলাকায় আবাদ হওয়া সবজির মধ্যে শসা, লাউ, মিষ্টি কুমড়া, শিম, বেগুন, ঢেঁড়স, বরবটি, কাঁচামরিচ, পেঁপে, কুমড়ার জালি, ঝিঙে, ধুন্দল, করলা ইত্যাদি উল্লেযোগ্য।

এ বিষয়ে ডুমুরিয়া উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ মো. মোছাদ্দেক হোসেন এ প্রতিবেদককে বলেন এবছর ডুমুরিয়া ফুলবাড়িয়ার কৃষক মামুনুর রশীদ ও আবু সাইদ তরমুজ চাষ করে প্রায় ৫ থেকে ৬ লাখ টাকা লাভ করেছে। এছাড়া কিছুদিন প‚র্বে সবজির দাম হ্রাস পেলেও বর্তমানে দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় খুশি প্রান্তিক কৃষকেরা। এছাড়া দক্ষিনাঞ্চলের ডুমুরিয়ায় চাষাবাদের জন্য পর্যাপ্ত স্থান, দক্ষ কৃষক ও উন্নত প্রযুক্তি থাকায় কৃষিতে ব্যাপক উন্নয়ের সম্ভাবনা দেখছেন এই কৃষিবিদ।


Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •