Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

মিঠুন গোস্বামী, রাজবাড়ীঃ দীর্ঘ প্রায় ৬ বছর পর হতে চলেছে রাজবাড়ী জেলা আওয়ামীলীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলন। প্রথম থেকেই এ সম্মেলন নিয়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা ছিলো। বিগত দিনের রাজবাড়ী জেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলনে দিন জেলা বাসি বুঝতে পারতেন সম্মেলনের কথা। তবে এবার তার উল্টোটা হয়েছে। জেলা ব্যাপী লাগানো হচ্ছে কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের নেতাদের ছবি সম্বলিত শেখ সোহেল রানা টিপুর ফেস্টুন।
এর আগে গত (২ সেপ্টেম্বর) বৃহস্পতিবার কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের ঢাকা বিভাগের দায়িত্বরত সাংগঠনিক সম্পাদক মীর্জা আজম আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর রাজবাড়ী জেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলনের নির্ধারিত তারিখের কথা জানালেও ওই সময় কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের বাইরে থাকবেন। যার ফলে সম্মেলনের নির্ধারিত তারিখ পরিবর্তন করে পুনরায় আগামী ১৬ অক্টোবর তারিখ নির্ধারন করা হয়েছে। জেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলন কে কেন্দ্র করে হাফ ডজনের ও বেশি প্রার্থী হতে যাচ্ছে গুরুত্বপূর্ণ দুই পদের বিপরীতে। এদের মধ্যে আওয়ামীলীগের দুঃসময়ের ঢাকা বিশব্বিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও সাবেক সেচ্ছাসেবকলীগ এর সাংগঠনিক সম্পাদক শেখ সোহেল রানা টিপু অন্যতম। 
 
যার ফলে আগামী জেলা সম্মেলন কে কেন্দ্র করে জেলার প্রতিটি গুরুত্বপূর্ণ স্থানে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামীলীগের সভাপতি শেখ হাসিনা, আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের ও সজীব ওয়াজেদ জয় এর ছবি সম্বলিতশেখ সোহেল রানা টিপুর ফেস্টুন লাগানো হচ্ছে। ওই ব্যানারে শুধু মাত্র আসন্ন জেলা আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন-২০২১ সফল হোক স্বার্থক হোক এমটাই রয়েছে।
গেল রবিবার সন্ধায় জেলা শহরের বড়পুল এলাকায় ওই শেখ সোহেল রানা টিপুর ছবি সম্বলিত ফেস্টুন লাগালে সেগুলো ভাংচুর করা হয়। সে সময় ফেস্টুন লাগানোর কাজে নিয়জিতদের মারপিট করা হয়েছে বলে জানা যায়। এদিকে বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনা ছবি সম্বলিত ফেস্টুন ভাংচুর করায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তুমুল আলোচনা চলছে। কেউ কেউ মন্তব্য করছে এ জেলা ব্যক্তিগত রাজনীতি চলে। সেখানে বঙ্গবন্ধু, শেখ হাসিনা অথবা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের ও নিরাপদ নয়৷ অনেক আবার মন্তব্য করেছে স্থানীয় নেতাদের ইশারায় এমন ঘটনা ঘটেছে।
ফেস্টুন ভাংচুরের বিষয়ে শেখ সোহেল রানা টিপুর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, জেলা আওয়ামীলীগের আসন্ন ত্রিবার্ষিক সম্মেলনকে স্বাগত জানানোর উদ্দেশ্যেই জেলা ব্যাপী ফেস্টুন লাগানো হচ্ছে। অথচ রাজবাড়ী জেলা শহরের বড়পুল এলাকায় কর্মীরা ফেস্টুন লাগানোর সময় কতিপয় ব্যক্তিরা বাঁধা প্রদান, ফেস্টুন ভাংচুর এবং ভ্যান চালক লিটন ও তার সাথে থাকা হাবিবকে মারপিট করে। পরে তাদের রাজবাড়ী সদর হাসপাতাল থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হয়েছে। এছাড়াও এ ঘটনায় রাজবাড়ী থানায় একটি লিখিত  অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। তিনি এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন এবং বিষয়টি কেন্দ্রীয় নেতাদের অবহিত করবেন বলেও জানান।
উল্লেখ্য, বিগত ২০১৩ সালের ১ নভেম্বর  যখন রাজবাড়ী পাংশা সরকারি কলেজ মাঠে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামীলীগের সভাপতি শেখ হাসিনা জনসভায় উপস্থিত হয়েছিলেন তখন ও ঢাকা বিশব্বিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি শেখ সোহেল রানা টিপুর পোষ্টার ছিড়ে ফেলা হয়েছিল।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •