Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বোয়ালমারী প্রতিনিধি: ফরিদপুরের বোয়ালমারী সদর ইউনিয়নের রামনগর
গ্রামের গৃহবধূ মারা যাওয়ার ঘটনায় বাচ্চু ফকির (৫০) সহ তিন জনের নামে
হত্যা মামলার অভিযোগ এনে সোমবার (২২ নভেম্বর) লিখিত অভিযোগ করেছেন ওই
গৃহবধূর ভাই মো. মিরাজ মোল্যা। মিরাজ মোল্যা সালথা উপজেলার বড় বাহিরদিয়া
গ্রামের মোতাহার মোল্যার ছেলে।
লিখিত অভিযোগে উল্লেখ করেন, মিরাজ মোল্যার বড় বোন ওই মৃত গৃহবধূ হেমালী
বেগম (৪০)। বিভিন্ন অজুহাতে হেলামী বেগমকে মারধর করে ও খুন জখমের হুমকি
দিয়ে আসছে তার শশুর বাড়ির লোকজন। বিষয়টি ওই গৃহবধূর ভাইসহ বাবার বাড়িতে
জানালে তারা বোনের বাড়িতে এসে সকলকে অনুরোধ করেন অত্যাচার না করার জন্য।
গত ১৭ নভেম্বর সকাল ৯ টার দিকে তার বোন হেমালী বেগমকে ঘরের মধ্যে আটকিয়ে
রেখে মারপিট করে জখম করে। আঘাতে ঘটনাস্থলে ওই গৃহবধূর মৃত্যু হয়। তখন
কীটনাশক তার মুখে ঢেলে বলে বেড়ায় কীটনাশক খেয়ে আত্মহত্যা করেছে। তিনি আরো
উল্লেখ করেন, তার বোন হেমালী বেগমের শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখমের চিহৃ
রয়েছে।
উল্লেখ্য গত ১৭ নভেম্বর হেমালী বেগম নামের এক গৃহবধূর লাশ রামনগর গ্রাম
থেকে উদ্ধার করে পুলিশ। পরে ১৮ নভেম্বর ওই লাশ ফরিদপুর মর্গে পাঠানো হয়
ময়না তদন্তের জন্য।
বোয়ালমারী থানা অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ নুরুল আলম বলেন, ওই গৃহবধূ
হেমালী বেগমের মৃত্যুর ঘটনায় লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে
ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •