Spread the love

ফ,ম,আইয়ুব আলী,স্টাফ রিপোর্টার খুলনা:রূপসা উপজেলাধীন আঠারোবেরী নদীর পূর্ব পাড়ের বেড়ী বাঁধের ভাঙ্গনের কারনে চর শ্রীরামপুর গ্রামবাসীর কৃষি ও বসত ভিটা নদীর পানিতে প্লাবিত হওয়ার শংকা।
 রূপসা উপজেলাধীন চর শ্রীরামপুর পূর্ব পাড়ের ০৮ থেকে ১০টি গ্রামবাসী প্রায় ৫১০ হেক্টর জমি নিয়ে গঠিত শ্রীরামপুর বিল পানি ব্যবস্থাপনা সমিতির মাধ্যমে কৃষি কাজ করে থাকে। আর এখানকার উৎপাদিত কৃষিপণ্য কয়েকটি অঞ্চলের খাদ্য চাহিদা পূরণ করে দেশের বিভিন্ন স্থানে সরবরাহ করে থাকে । অত্র এলাকার গ্রামবাসীর কৃষিকাজই জিবীকা অর্জনের একমাত্র অবলম্বন। সম্প্রতি সময় নদীর পশ্চিম পার্শ্বে (নন্দনপুর গ্রামের পূর্ব পাড়ে) ০৫ টি ইটের ভাটা অবস্থিত থাকায়
 উল্লেখিত ভাটাগুলি নদীর পশ্চিম পাশে অবস্থিত হওয়ায় তারা প্রতিবছর ভাটার আধলা ইট/পরিত্যাক্ত ইট নদীর পাড়ে ফেলে খাস খতিয়ানভুক্ত নদীর সকল জমি দখল করে ফেলেছে এবং প্রতিনিয়ত নদীর ভিতর ক্রমান্বয়ে এগুচ্ছে যার ফলে নদী শাসিত হয়ে জোয়ার ভাটার সময় নদীর স্রোত পূর্ব পাড়ে আঘাত করায় বেড়ী বাঁধ সহ মালিকানাধীন কৃষি জমির প্রায় ৭০০ মিঃ দৈর্ঘ্য পর্যন্ত ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে এবং প্রতিনিয়ত ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে। যে কোন মুহূর্তে অত্র এলাকা গ্লাবিত হতে পারে। এমতাবস্থায়  নদীর পশ্চিম পাশে নদনপুর এলাকায় উল্লেখিত ইট ভাটার মালিকগণ দ্বারা দখলকৃত নদী উদ্ধার করে নদীটি খনন করলে নদীর গতিপথ পূর্ব অবস্থায় ফেরানো সম্ভব এবং অত্র এলাকাবাসী নদী ভাঙ্গন তথা বন্যায় কৃষি জমি সহ বসত ভিটা প্লাবনের হাত হতে রক্ষা পাবে বলে তাদের দাবি। এ লক্ষ্যে এলাকাবাসী রূপসা উপজেলা প্রশাসন, খুলনা জেলা প্রশাসকের কার্যালয় ও সংশ্লিষ্ট এলাকার এমপি আব্দুস সালাম মূর্শেদী’র হস্তক্ষেপ কামনা করে আসছিল। তারই ধারাবাহিকতায় গত ২০ এপ্রিল দুপুর ২ টার সময় উপজেলা প্রশাসন ,এমপি’র প্রতিনিধি দল ও এলাকাবাসী মিলে চর কেটে অপসারণ করার লক্ষ্যে একটি ড্রেজার চালু করেন। এছাড়াও উপস্থিত সকলের সিদ্ধান্ত মোতাবেক আগামী শনিবার থেকে আরো ২টি ভেকু দিয়ে চর কেঁটে অপসারণ করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন রূপসা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুবাইয়া তাছমিন, সহকারী কমিশনার ভূমি মোঃ সাজ্জাদ হোসেন, খুলনা জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও রূপসা  কলেজের অধ্যক্ষ ফ. ম আব্দুস সালাম, সদস্য মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন মুকুল, রূপসা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ সরদার মোশাররফ হোসেন ,উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ আরিফ হোসেন, সহকারি মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ গোলাম মোস্তফা , নৈহাটি ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ কামাল হোসেন বুলবুল, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম হাবিব , শ্রীরামপুর বিল পানি ব্যবস্থাপনা সমবায় সমিতির সভাপতি আব্দুর রউফ কোরাইশী, আসাদুজ্জামান বাবু,উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি মোঃ রুহুল আমিন রবি, আওয়ামীলীগ নেতা মোঃ ইলিয়াসুর রহমান , ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি সাংবাদিক ফ,ম,আইয়ুব আলী, ইউপি সদস্য মোঃ রাজ্জাক শেখ, শ্রমিক লীগ নেতা মোঃ জাহাঙ্গীর শেখ,মোঃ দাউদ শেখ, মোঃ মাহবুব শেখ প্রমুখ।

Spread the love